লুডু বা পাশা খেলা হারাম

পাশা বা লুডু খেলার বিধান কি?

পাশা বা লুডু খেলা ইসলামে হারাম। পবিত্র কোরআনে মহান আল্লাহ বলেন,

یَـٰۤأَیُّهَا ٱلَّذِینَ ءَامَنُوۤا۟ إِنَّمَا ٱلۡخَمۡرُ وَٱلۡمَیۡسِرُ وَٱلۡأَنصَابُ وَٱلۡأَزۡلَـٰمُ رِجۡسࣱ مِّنۡ عَمَلِ ٱلشَّیۡطَـٰنِ فَٱجۡتَنِبُوهُ لَعَلَّكُمۡ تُفۡلِحُونَ
إِنَّمَا یُرِیدُ ٱلشَّیۡطَـٰنُ أَن یُوقِعَ بَیۡنَكُمُ ٱلۡعَدَ ٰ⁠وَةَ وَٱلۡبَغۡضَاۤءَ فِی ٱلۡخَمۡرِ وَٱلۡمَیۡسِرِ وَیَصُدَّكُمۡ عَن ذِكۡرِ ٱللَّهِ وَعَنِ ٱلصَّلَوٰةِۖ فَهَلۡ أَنتُم مُّنتَهُونَ

অর্থ: হে মুমিনগণ, এই যে মদ, জুয়া, প্রতিমা এবং ভাগ্য-নির্ধারক শরসমূহ এসব শয়তানের অপবিত্র কার্য বৈ তো নয়। অতএব, এগুলো থেকে বেঁচে থাক-যাতে তোমরা কল্যাণপ্রাপ্ত হও।
শয়তান তো চায়, মদ ও জুয়ার মাধ্যমে তোমাদের পরস্পরের মাঝে শত্রুতা ও বিদ্বেষ সঞ্চারিত করে দিতে এবং আল্লাহর স্মরণ ও নামায থেকে তোমাদেরকে বিরত রাখতে। অতএব, তোমরা এখন ও কি নিবৃত্ত হবে? (সুরা মায়িদা আয়াত-৯০-৯১)

মনে রাখতে হবে, যেসব খেলা পরস্পরে শত্রুতা ও হিংসা সৃষ্টি করে এবং নামাজ ও আল্লাহর স্মরণ থেকে বিরত রাখে, সে সব খেলায় আর্থিক জুয়া থাক বা না থাক, তা অবশ্যই নিষিদ্ধ এবং তা মাইসির তথা জুয়ার এর অন্তর্ভুক্ত।

বিশিষ্ট তাবেয়ী হযরত কাসিম বিন মুহাম্মাদ র: বলেন,

قَالَ الْقَاسِمُ بْنُ مُحَمَّدٍ كُلُّ مَا أَلْهَى عَنْ ذِكْرِ اللَّهِ وَعَنِ الصَّلَاةِ فَهُوَ مِنَ الْمَيْسِرِ

অর্থাৎ প্রত্যেক এমন বস্তু যা আল্লাহর স্মরণ হতে এবং নামাজ হতে মানুষকে ভুলিয়ে রাখে, সেটাই ‘মাইসির’ বা জুয়া।
সূূূ্ত্র: মাজমুউ ফাতাওয়া (ইবনে তাইমিয়া) খ:৩২ পৃ:১৫১

পাশা বা লুডু জুয়ার অন্তর্ভুক্ত।

হাদিসে আসছে,

عن نافع ان ابن عمر كان يقول النرد هي الميسر

অর্থাৎ হযরত নাফে র: ইবনে ওমর রা: থেকে বর্ণনা করেন, পাশা (বা লুডু) এটা (কোরআনে বর্ণিত) জুয়া (অন্তর্ভুক্ত)।
সূত্র: আল মুহাযযাব হাদিস- ১৬১৭৫

পাশা বা লুডু খেলা আল্লাহ ও তাঁর রাসুলের নাফরমানীর অন্তর্ভুক্ত।

مَنْ لَعِبَ بِالنَّرْدِ فَقَدْ عَصَى اللَّهَ وَرَسُولَهُ

অর্থ: যে পাশা (বা লুডু) খেলল, সে আল্লাহ ও তাঁর রাসূলের নাফরমানি করল।
সূত্র: আবু দাউদ হাদীস- ৪৯৩৮

হাদিসে আরো এসেছে,

أن النبي صلى الله عليه وسلم قال من لعب بالنردشير فكأنما صبغ يده في لحم خنزير ودمه

অর্থ: নবিজি স: বলেন, যে ব্যক্তি পাশা (বা লুডু) খেললো, সে যেন তার হাত শুকরের মাংস ও রক্তে ডুবালো।
সূত্র: সহীহ মুসলিম হাদিস- ২২৬০

পাশা, লুডু অথবা এ জাতীয় খেলার মধ্যে আরো অনেক ধরণের অপরাধ জড়িয়ে থাকে, যে গুলো ইসলাম কোনভাবেই সমর্থন করে না। অতএব পাশা বা লুডু খেলার মত হারাম কাজ থেকে আমরা বিরত থাকবো।

লেখক:

মুফতী রিজওয়ান রফিকী

পরিচালক- মাদরাসা মারকাযুন নূর বোর্ড বাজার,গাজীপুর।

Check Also

IMG 20220418 125840

পুরুষের জন্য মেহেদী ব্যবহার হারাম।

সাজ-সজ্জার উদ্যেশ্যে পুরুষদের জন্য বিয়ের সময় হোক বা অন্য যেকোনো সময় হোক হাতে-পায়ে মেহেদী ব্যবহার …

3 comments

  1. কিছু কিছু ফতুয়া সময় কাল দেখে দেওয়া উচিৎ কারন কোন কোন ইমামের মতে এটা শুধু জায়েজ নয় ইস্তেহসান

  2. Abutahir misbah

    জাযাকাল্লাহ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.