তারাবীহ শব্দ দিয়ে ২০ রাকাতের প্রমাণ:

প্রিয় পাঠক, একটু মনোযোগ দিলেই বিষয়টি ক্লিয়ার হবে যে, تَرَاوِيْحُ (তারাবীহ) শব্দটিই বলে দিচ্ছে যে, তারাবীহ অন্তত ১২ রাকাতের বেশি হতে হবে। তারাবীহ শব্দটির মধ্যেই ৮ রাকাত হবার কোনো সম্ভাবনাও নেই । চলুন বিষয়টি দেখা যাক।

তারাবীহ শব্দের অর্থ কি?

হাফেজ ইবনে হাজার আসকালানী রহ. বলেন,

التراويح جمع ترويحة وهي المرة الواحدة من الراحة كتسليمة من السلام، وسميت الصلاة في الجماعة في ليالي رمضان التراويح لأنهم أول ما اجتمعوا عليها كانوا يستريحون بين كل تسليمتين

অর্থাৎ تَرَاوِيْحُ (তারাবীহ) শব্দটি تَرْوِيْحَةٌ (তাররবীহাতুন) -এর বহুবচন। تَرْوِيْحَةٌ (তাররবীহাতুন) এর অর্থ একবার রাহাত (বিশ্রাম) নেওয়া। যেমন تَسْلِيْمَةٌ -এর অর্থ একবার সালাম দেওয়া। মাহে রমযান এর বরকতময় রজনীতে জামা’আতের সঙ্গে যে নামাজ পড়া হয় তাকে সালাতুত তারাবীহ বলে । এ নামকরণের কারণ হচ্ছে, যখন থেকে সাহাবায়ে কেরাম এ নামায সম্মিলিতভাবে আদায় করতে আরম্ভ করেন তখন থেকেই তারা প্রতি দু’সালামের পর অর্থাৎ চার রাকাতের পর বিশ্রাম নিতেন ।
সূত্র: ফাতহুল বারী খ. ৫ পৃ. ২১৭

সালাফীদের মন্তব্য:

শায়খ মুহাম্মদ বিন ইবরাহিম আত তুআইজিরী রহ. এর কিতাবের অনুবাদক শায়খ আব্দুর রাজ্জাক সালাফী বলেন,
‘তারাবীহ’ আরবী শব্দ ترويحة তারনিহাতুন’ এর বহু বচন। শব্দটির অর্থ ক্ষণিকের জন্য বিশ্রাম গ্রহণ করা। হাদিসে এ শব্দটি ব্যবহ্নত হয়নি। হাদিসে এ সালাতকে ‘কিয়াম ফি রমাযান’ ‘রমযান মাসের রজনীতে দাঁড়ানো’ নামে অবিহিত করা হয়েছে। আমাদের নবী করীম সা. রমযানের রাতে প্রতি ৪ রাকায়াত সালাতের পর ক্ষণিক বিশ্রাম নিতেন। বিধায় পরবর্তী সময়ের ফকীহগণ এ সালাতের নামকরণ করেন তারাবীহ সালাতে।
সূত্র: রাসুল সা. এর প্যাকটিক্যাল নামায পৃ. ২১৯
পিস পাবলিকেশন

তাহলে বুঝা গেল, ترويحة তারবিহাতুন’ শব্দের অর্থ হলো ৪ রাকাতের পর বিশ্রাম নেওয়া।

এবার খেয়াল করুন:

কথাটি বুঝার আগে আরবী ব্যাকরণের একটি নিয়ম জানা দরকার। সেটা হলো, আরবী ভাষায় বচণ তিনটি ব্যবহার হয়। একবচন, দ্বিবচন, এরপর বহুবচন । এক বুঝাতে واحد তথা একবচন, দুই বুঝাতে تثنية তথা দ্বিবচন আর ৩ বা ততোধিক বুঝাতে আরবীতে جمع তথা বহুবচন ব্যবহৃত হয়।

এখন দেখুন, ترويحة (তারবীহাহ) শব্দটি একবচন, যার جمع বা বহুবচন হলো تراويح (তারাবীহ)। অর্থাৎ تراويح শব্দটির মধ্যে অন্তত তিন ترويحة (তারবীহাহ) রয়েছে।
আর এক ترويحة (তারবীহাহ) মানে হলো, ৪ রাকাতের পর বিশ্রাম করা। তাহলে
এক ترويحة (তারবীহাহ) = ৪ রাকাত
দুই ترويحة (তারবীহাহ) = ৪ রাকাত
তিনি ترويحة (তারবীহাহ)= ৪ রাকাত
সর্ব মোট তিন ترويحة (তারবীহাহ) মিলে ১২ রাকাত।
আর এই তিন ترويحة (তারবীহাহ) এর সমষ্টি হলো, تراويح (তারাবীহ)। তাহলে তারাবীহ শব্দের অর্থই বলে দিচ্ছে যে, তারাবীহ বলতে গেলে অন্তত ১২ রাকাত বা তার বেশি হতে হবে। ১২ এর কম হলে সেক্ষেত্রে ‘তারাবীহ’ শব্দটাই ব্যবহার করাটা মুর্খতা।

Check Also

ইমাম সাহেবের হুজরায় যেতে পারবে কি না?

إن خرج من غير عذر ساعة فسد اعتكافه অর্থাৎ কোনো প্রয়োজন ছাড়া যদি ইতিকাফকারী ব্যক্তি …

Leave a Reply

Your email address will not be published.