কবিতা সমগ্র

উল্টো বাস্তবতা:

লেখক: মুফতী রিজওয়ান রফিকী লোকে বলে, লেখা-পড়া করলে নাকি গাড়ি ঘোড়া হয়, এখন শিক্ষিতরাই বেকার তবে মুর্খরা মশাই। লোকে বলে, যেই কলেজের সভাপতি মুর্খ মশাই নেতা, ছাত্র টিচার সেই নেতাজির করবে জুতা সোজা। লোকে বলে, মান দিতে শিখলে নাকি মান পাওয়া যায়, এখন অভদ্ররাই মাননীয়, ভদ্র ধমক খায়। লোকে বলে চোরের বাড়ি দালাল ওঠে না, এখন চুরি ছাড়া দালান করার …

Read More »

স্বাধীনতার গপ:

লেখক: মুফতী রিজওয়ান রফিকী আসো গল্প বলি এক স্বাধীনতার, যা অর্জিত লক্ষ জিবন সাধনার। আদর্শ বুলি মারি, কর্মে জুলুমবাজ আমরা কি সন্তান নাকি গাদ্দার? গল্প বলি এক স্বাধীনতার, আসো গল্প বলি এক স্বাধীনতার, যা অর্জিত লক্ষ জিবন সাধনার। ভিজিটের কান্ডে ডাক্তার মশাই, আস্তা কসাই, চেকাপ চেকাপ আর চেকাপ দিয়ে, খুব হচ্ছে কামাই। স্বাধীন দেশের নেতার ভুড়ি, হচ্ছে গোপাল ভাড়, হচ্ছে …

Read More »

নন্দিত মানব নিন্দিত কেন?

লেখক: মুফতী রিজওয়ান রফিকী। কাক বলো, বক বলো বলো রে কোকিল, মানুষেরই সাথে কারো হয় না কভু মিল। হাতি কি বা সিংহ বলো, কা’বা কি ফিরিস্তা বলো, বলো রে আসমান, শ্রেষ্ট মানব তোমার মত, নয় কারো সম্মান। ক্ষুদ্র পোকা জোনাকীটা কত আলো দেয়, শ্রেষ্ট মানব দিন দুপুরে মানব জিবন নেয়। ঝিনুক মাঝে মুক্তা মনি, খেজুর গাছে রস, হায়রে মানব, লোভ …

Read More »

সৈনিক

احباب کو رنجیدہ کرونگا نہ بتا کر ایام مظالم میں جو گزرے ہے مشاکل الله کے دین کے لئے تکلیف و اذیت تذلیل نہیں فخر ہے ائے نیک خصایل مجکو ہے یقین حق کا سر انجام علو ہے دو روز اگر زور دیکھاتے ہے اباطل مغرور غلط طرز سیاست ہے جہاں میں تلوار سے ہو تا ہے کہا حل مسائل …

Read More »

আযমতে সাহাবা রা.

    جو شخص صحابہ کا وفادار نہیں ہے آقا کی شفاعت کا وہ حقدار نہیں ہے دیکھے جو صحابہ کی طرف میلی نظر سے ہو کوئی بھی واللہ وہ حیادار نہیں ہے جس سینے میں ہو بغض ابو بکر و عمر کا اس کینے سے پر سینے میں قرار نہیں ہے کم ذات کے حملے ہے بر ایمان صحابہ …

Read More »

রবই তিনি এক

আচ্ছা মানুষ বলো দেখি রাত্রি কেন কাল,? সূর্য বলো কোথা হতে পাইল এত আলো? ফুলগুলো নানান রংয়ের কেমন করে হয়? পাতাগুলো সবুজ বটে ফুলের মত নয়? দুধ কেন এত সাদা মরিচ কেন ঝাল? আম গুলো পাকলে বলো কেমনে হয় তা লাল? আবার পশু পাখি কয় না কথা মানুষ কেন কয়? বলো বলো ওহে মানুষ এসব কেমন করে হয়? ভাবি সবি …

Read More »

রবের মহিমা

লেখক: মুফতী রিজওয়ান রফিকী। হায়রে মানুষ, ভাবছো কভু কে বানালেন তোমায়? দিনকে রাতে রাতকে দিনে কে বলো রে  ঘোরায়? হরেক রকম মানুষ কেহ সাদা কিংবা কালো, অন্ধ,বোবা,বয়রা কেহ লম্বা কি বা খাটো। হিজড়া কেহ পুরুষ-নারী কন্ঠ কালার ভিন। গরীব কি বা ধনী কেহ বিধবা এতিম। নানান রঙ্গের গাভী তবু, দুধের কালার এক, মাকাল ফলে তিতা তবু তেতুল মাঝে টক। বৃক্ষ …

Read More »

না থাকিলে তেল।

  স্বার্থবাদের এ দুনিয়ায় না থাকিলে তেল, তেল ছাড়া তো রয় ভরে, কারো কোনো বেইল। ও যুবক, তোর পকেট ফাকা, মাইয়া পাইবা না, টাকাই প্রেমিক, টাকাই স্বামী, টাকাই ভালোবাসা। প্রেমের সময় মেয়ে তোমায় বলেছিল জান, বিয়ের সময় খোঁজে টাকাওয়ালা কালাচান। সাবধানে থাকিও স্বামী, পকেট হয়রে যদি ফাকা, বউটা তোমার রয় না ঘরে, প্রেমে পড়ে ঠাডা। হাদিয়া বিনে মুরিদ পীরের নজরও …

Read More »

রিজিক দিলেন কে?

  আকাশ তোমায় কে দিলো রে এমন নিলিমা? খুটিবিহীন কেমনে তুমি দাঁড়িয়ে রইলা? তিমি তোমার হাজার টন খাবার দিলেন কে? ঝিনুক তোমার মাঝে দামি মুক্তা কোথায় পেলে কোন অফিসে চাকরি করো ওহে বনের পাখি, খাবার নিয়ে বাসায় ফেরো কই পাও রে টাকাকড়ি কে দিলো রে কোকিল তোমার কণ্ঠ চমৎকার, হরিণ তোমার নাভি ভরা মেশক আম্বর। কোন চিনিতে মিষ্টি বলো বনের …

Read More »

নাম দিয়ে কি হয়?

  মতিঝিলে মতি নেই, নেই রে কোন ঝিল, চাঁদপুরে তো চাঁদ নাই, আছে শুধু বিল। কর্ণফুলীর ফুল নেই, রাজশাহীতে রাজা, বুড়িগঙ্গার বুড়ি নেই, সোনারগাঁয়ে সোনা। নবাবগঞ্জে নবাব নেই, ঢাকা শহর ফাঁকা। নাম দিয়ে ভাই যায় না চেনা আসল ঠিকানা, পীর হাবিবুর পীর নয়, লেখায় মিথ্যা ভরা, মাকাল ফলের কালার ভালো ভেতরটা তিতা, শরীয়তপুরে দ্বীন-ইসলাম কায়েম নাই সেথা, ভণ্ডপীরের ভন্ডামীতে ধর্মে …

Read More »