কুকুর পালা কি জায়েয?

শরীয়তসম্মত ওজর ছাড়া কুকুর পালা জায়েয নয়, বরং এটা মারাত্মক গুনাহের কাজ। হাদীস শরীফে এসেছে,

عَنْ أَبِي طَلْحَةَ رضى الله عنهم قَالَ قَالَ النَّبِيُّ صلى الله عليه وسلم لاَ تَدْخُلُ الْمَلاَئِكَةُ بَيْتًا فِيهِ كَلْبٌ وَلاَ تَصَاوِيرُ

অর্থ: হযরত আবূ ত্বলহা রা. হতে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ ফেরেশতা ঐ ঘরে প্রবেশ করেন না, যে ঘরে কুকুর থাকে এবং ঐ ঘরেও না, যে ঘরে ছবি থাকে।
সূত্র: সহীহ বুখারী,হাদীস: ৫৯৪৯

অপর হাদিসে এসেছে,

عَنِ ابْنِ عُمَرَ قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم مَنِ اقْتَنى كَلْبًا إلّا كَلْبَ صَيْدٍ أوْ ماشِيَةٍ نَقَصَ مِن أجْرِهِ كُلَّ يَومٍ قِيراطانِ

অর্থ: হযরত আব্দুল্লাহ ইবনে উমার রা. হতে বর্ণিত আছে, তিনি বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ যে ব্যক্তি শিকার করা বা গবাদি পশু বা শস্যক্ষেত পাহারা দেওয়ার উদ্দেশ্য ছাড়া কুকুর পালে তার প্রতিদিন দুই কিরাত পরিমাণ নেকি হ্রাস পায়।
সূত্র: সহীহ মুসলিম, হাদীস ১৫৭৫

আর এ হাদীসের উপর ভিত্তি করে কোনো কোনো ফকীহ বলেছেন, ঘর-বাড়ি পাহারার প্রয়োজনেও কুকুর রাখা জায়েয।

এ সব প্রয়োজন ছাড়া কুকুর পালা জায়েয নয়। বিশেষত বর্তমানে বিজাতীয় ফ্যাশনের অনুকরণে কুকুর পালার যে রেওয়াজ হয়েছে তা সম্পূর্ণ হারাম। কারণ হাদিসে এসেছে,

عَنِ ابْنِ عُمَرَ قَالَ قَالَ رَسُولُ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ مَنْ تَشَبَّهَ بِقَوْمٍ فَهُوَ مِنْهُمْ

অর্থ: হযরত ইবনে ওমর রাঃ থেকে বর্ণিত। রাসূল সাঃ ইরশাদ করেছেন- যে ব্যক্তি যার সাদৃশ্য গ্রহণ করে, সে তাদেরই অন্তর্ভূক্ত।
সূত্র: সুনানে আবু দাউদ, হাদীস-৪০৩১ আহমাদ-৫১১৪

লেখক:

মুফতী রিজওয়ান রফিকী

পরিচালক: মারকাযুন নূর মাদরাসা বোর্ডবাজার, গাজীপুর।

Check Also

IMG 20220418 125840

পুরুষের জন্য মেহেদী ব্যবহার হারাম।

সাজ-সজ্জার উদ্যেশ্যে পুরুষদের জন্য বিয়ের সময় হোক বা অন্য যেকোনো সময় হোক হাতে-পায়ে মেহেদী ব্যবহার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.