ইতিকাফের ফযিলত

عن عائشة أن النبي صلى الله عليه وسلم قال من اعتكف إيمانا واحتسابا غفر له ما تقدم من ذنبه
সূত্র: ফয়জুল ক্বাদীর হাদিস: ৮৪৮০

عن الحسين بن علي رضي الله عنهما قال قال رسول الله صلى الله عليه وسلم من اعتكف عشرا في رمضان كان كحجتين وعمرتين
সূত্র: শুয়াবুল ঈমান (বাইহাকী) হাদিস: ৩৯৬৬

عَنْ ابْنِ عَبَّاسٍ أَنَّ رَسُولَ اللهِ صلى الله عليه وسلم قَالَ فِي الْمُعْتَكِفِ هُوَ يَعْكِفُ الذُّنُوبَ وَيُجْرَى لَهُ مِنْ الْحَسَنَاتِ كَعَامِلِ الْحَسَنَاتِ كُلِّهَا
সূত্র: সুনানে ইবনে মাজা হাদিস: ১৭৮১

ومن اعتكف يومًا ابتغاءَ وجهِ اللهِ جعل اللهُ بينه وبين النّارِ ثلاثَ خنادقَ كلُّ خندقٍ أبعَدُ ممّا بين الخافِقَيْن
সূত্র: শুয়াবুল ঈমান (বাইহাকী) হাদিস: ৩৯৬৫ তবরানী: ৭৩২৬

…বাড়ি মেহমান গেলে-
১. পার্সোনালি সময় দেয়
২. ভিআইপি খাবার দেয়
৩. হাদিয়া দেয়।

وَمَا يَزَالُ عَبْدِي يَتَقَرَّبُ إِلَيَّ بِالنَّوَافِلِ حَتَّى أُحِبَّهُ ، فَإِذَا أَحْبَبْتُهُ كُنْتُ سَمْعَهُ الَّذِي يَسْمَعُ بِهِ ، وَبَصَرَهُ الَّذِي يُبْصِرُ بِهِ ، وَيَدَهُ الَّتِي يَبْطِشُ بِهَا ، وَرِجْلَهُ الَّتِي يَمْشِي بِهَا ، وَإِنْ سَأَلَنِي لأُعْطِيَنَّهُ ، وَلَئِنْ اسْتَعَاذَنِي لأُعِيذَنَّهُ
সূত্র: সহিহ বুখারী হাদিস: ৬৫০২

নবীজি সা. এর ইতিকাফ

ﻋَﻦْ ﺃَﺑِﻲ ﻫُﺮَﻳْﺮَﺓَ ﻗَﺎﻝَ ﻛَﺎﻥَ ﻳَﻌْﺮِﺽُ ﻋَﻠَﻰ ﺍﻟﻨّﺒِﻲِّ ﺻَﻠّﻰ ﺍﻟﻠﻪُ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻭَﺳَﻠّﻢَ ﺍﻟﻘُﺮْﺁﻥَ ﻛُﻞّ ﻋَﺎﻡٍ ﻣَﺮّﺓً، ﻓَﻌَﺮَﺽَ ﻋَﻠَﻴْﻪِ ﻣَﺮّﺗَﻴْﻦِ ﻓِﻲ ﺍﻟﻌَﺎﻡِ ﺍﻟّﺬِﻱ ﻗُﺒِﺾَ ﻓِﻴﻪِ، ﻭَﻛَﺎﻥَ ﻳَﻌْﺘَﻜِﻒُ ﻛُﻞّ ﻋَﺎﻡٍ ﻋَﺸْﺮًﺍ، ﻓَﺎﻋْﺘَﻜَﻒَ ﻋِﺸْﺮِﻳﻦَ ﻓِﻲ ﺍﻟﻌَﺎﻡِ ﺍﻟّﺬِﻱ ﻗُﺒِﺾَ ﻓِﻴﻪِ .
সূত্র: সহীহ বুখারী হাদিস: ৪৯৯৮

প্রয়োজন ছাড়া মসজিদ থেকে বের হলে, ইতিকাফ হবে?

ان ركن الاعتكاف وهو اللبث
সূত্র: আল মাবসুত খ. ২ পৃ. ১২২

إن خرج من غير عذر ساعة فسد اعتكافه
সূত্র: ফাতাওয়া হিন্দিয়া খ. ১ পৃ. ২১২

عَنْ عَائِشَةَ، أَنَّهَا قَالَتْ: ” السُّنَّةُ عَلَى الْمُعْتَكِفِ: أَنْ لَا يَعُودَ مَرِيضًا، وَلَا يَشْهَدَ جَنَازَةً، وَلَا يَمَسَّ امْرَأَةً، وَلَا يُبَاشِرَهَا، وَلَا يَخْرُجَ لِحَاجَةٍ، إِلَّا لِمَا لَا بُدَّ مِنْهُ، وَلَا اعْتِكَافَ إِلَّا بِصَوْمٍ، وَلَا اعْتِكَافَ إِلَّا فِي مَسْجِدٍ جَامِعٍ
সূত্র: সুনানে আবু দাউদ হাদিস: ২৪৭৩

টাকার বিনিময়ে ইতেকাফ

এতেকাফ একটি ইবাদত। আর ইবাদতকে ব্যবসা বানানো বৈধ নয়। যেহেতু ইতিকাফকে বিক্রি করা জায়েজ নয়। তাই এ ইতিকাফের কোন সওয়াব হবে না। এ কারণে এমন ইতিকাফের মাধ্যমে এলাকাবাসী দায়িত্বমুক্ত হবে না। [ফাতাওয়া মাহমূদিয়া-১৫/৩৩৬]

الْأَصْلُ أَنَّ كُلَّ طَاعَةٍ يَخْتَصُّ بِهَا الْمُسْلِمُ لَا يَجُوزُ الِاسْتِئْجَارُ عَلَيْهَا عِنْدَنَا

সূত্র: রদ্দুল মুহতার খ. ৯ পৃ. ৭৬

হাদিস শরীফে আসছে,

اقرَؤوا القُرآنَ، ولا تأكُلوا به،
সূত্র: মাসনাদে আহমাদ হাদিস: ১৫৫৩৫

স্বপ্নদোষ হলে ইতিকাফ নষ্ট হবে না।

عن عائشة أم المؤمنين رضي الله عنها قالت قال النبي صلي الله عليه وسلم رُفِعَ القلَمُ عن ثلاثةٍ عن النائمِ حتّى يستيقِظَ وعن المُبتلى حتّى يبرَأَ وعن الصَّبيِّ حتّى يكبَرَ
সূত্র: আবু দাউদ হাদিস-৪৩৯৮ নাসাঈ-৩৪৩২ ইবসে মাজা-২০৪১ আহমাদ-২৪৭৩৮ (হাদিস: সহীহ)।

ইতিকাফ অবস্থায় লেনদেনের কথা বলা যাবে।

ولا بأس بان يشترى المعتكف ويبيع في المسجد ويتحدث بما بدا له بعد أن لا يكون مأثما
সূত্র: আল মাবসুত (সারাখসী) খ. ৩ পৃ. ১২১

والبيع والشراء من جنس الكلام المباح فلا بأس به للمعتكف
সূত্র: আল মাবসুত খ. ৩ পৃ. ১২২

কারণ হাদিস শরীফে এসেছে,

عَنْ صَفِيَّةَ بِنْتِ حُيَىٍّ، قَالَتْ كَانَ النَّبِيُّ صلى الله عليه وسلم مُعْتَكِفًا فَأَتَيْتُهُ أَزُورُهُ لَيْلاً فَحَدَّثْتُهُ
সূত্র: সহিহ মুসলিম হাদিস: ২১৭৫

তবে পন্য মসজিদে আনা যাবে না।

وهذا إذا لم يحضر السلعة إلى المسجد فاما احضار السلعة إلى المسجد للبيع والشراء في المسجد مكروه فان النبي صلى الله عليه وسلم قال جنبوا مساجدكم إلى قوله وبيعكم وشراءكم
সূত্র: আল মাবসুত (সারাখসী) খ. ৩ পৃ. ১২২

কারণ হাদিস শরীফে আসছে, হযরত মুয়াজ ইবনে জাবাল রা. থেকে বর্ণিত নবীজি সা. বলেন,
جنِّبُوا مساجدَكم صبيانَكم وخصوماتِكم وحدودَكم وشراءَكم وبيعَكم وجَمِّرُوها يومَ جُمَعِكم واجعلوا على أبوابِها مطاهرَكم
সূত্র: মুসান্নাফে আব্দুরর রাজ্জাক হাদিস: ১৭২৬ তবরানী: ৩৬৯

ইতিকাফ অবস্থায় মলমূত্রত্যাগ ও ওযু-গোসলের জন্য মসজিদ থেকে বের হওয়া।

ويخرج ايضا لأمر لابد منه ثم يرجع إلى المسجد بعد ما فرغ من ذلك الأمر سريعا، ويخرج للوضوء والاغتسال فرضا كان او نفلا
সূত্র: ফাতাওয়া তাতারখানিয়া খ. ৩ পৃ. ৪৪৬

কারণ হাদিস শরীফে এসেছে, আম্মাজান হযরত আয়েশা রা. বলেন,

كان لا يَدخلُ البيتَ إلا لحاجةِ الإنسانِ
সূত্র: আল মাজমুউ (নববী) খ. ৬ পৃ. ৪৯৯

মসজিদের ছাদে যেতে পারবে কি না?

যদি ছাদে যাবার সিড়ি মসজিদের বাইরে না হয়, বরং ভিতরে হয়, তাহলে যেতে পারবে। কিন্তু যদি ছাদে যাবার সিড়ি মসজিদের বাইরে হয়,তাহলে যেতে পারবে না। বাইরে গিয়ে মসজিদের ছাদে উঠলে ইতিকাফ ভেঙ্গে যাবে।

وَصُعُودُ الْمِئْذَنَةِ إنْ كَانَ بَابُهَا فِي الْمَسْجِدِ لَا يَفْسُدُ الِاعْتِكَافُ
সূত্র; বাহরুর রায়েক খ. ২ পৃ. ৫২৯

عَنْ عَائِشَةَ، أَنَّهَا قَالَتْ: ” السُّنَّةُ عَلَى الْمُعْتَكِفِ: أَنْ لَا يَعُودَ مَرِيضًا، وَلَا يَشْهَدَ جَنَازَةً، وَلَا يَمَسَّ امْرَأَةً، وَلَا يُبَاشِرَهَا، وَلَا يَخْرُجَ لِحَاجَةٍ، إِلَّا لِمَا لَا بُدَّ مِنْهُ، وَلَا اعْتِكَافَ إِلَّا بِصَوْمٍ، وَلَا اعْتِكَافَ إِلَّا فِي مَسْجِدٍ جَامِعٍ
সূত্র: সুনানে আবু দাউদ হাদিস: ২৪৭৩

ইমাম সাহেবের হুজরায় যেতে পারবে কি না?

ان ركن الاعتكاف وهو اللبث
সূত্র: আল মাবসুত খ. ২ পৃ. ১২২

إن خرج من غير عذر ساعة فسد اعتكافه
সূত্র: ফাতাওয়া হিন্দিয়া খ. ১ পৃ. ২১২

عَنْ عَائِشَةَ، أَنَّهَا قَالَتْ: ” السُّنَّةُ عَلَى الْمُعْتَكِفِ: أَنْ لَا يَعُودَ مَرِيضًا، وَلَا يَشْهَدَ جَنَازَةً، وَلَا يَمَسَّ امْرَأَةً، وَلَا يُبَاشِرَهَا، وَلَا يَخْرُجَ لِحَاجَةٍ، إِلَّا لِمَا لَا بُدَّ مِنْهُ، وَلَا اعْتِكَافَ إِلَّا بِصَوْمٍ، وَلَا اعْتِكَافَ إِلَّا فِي مَسْجِدٍ جَامِعٍ
সূত্র: সুনানে আবু দাউদ হাদিস: ২৪৭৩

মহিলাদের ই’তিকাফ বৈধ।

عَنْ عَائِشَةَ ـ رضى الله عنها ـ زَوْجِ النَّبِيِّ صلى الله عليه وسلم أَنَّ النَّبِيَّ صلى الله عليه وسلم كَانَ يَعْتَكِفُ الْعَشْرَ الأَوَاخِرَ مِنْ رَمَضَانَ حَتَّى تَوَفَّاهُ اللَّهُ، ثُمَّ اعْتَكَفَ أَزْوَاجُهُ مِنْ بَعْدِهِ‏.‏
সূত্র: সহিহ আল বুখারী হাদিস: ২০২৬

Check Also

ঝিনুক চুপ থাকে। ঝিনুক ভাদ্র মাসে অমাবস্যার রাতে সাগর থেতে উঠে এসে হা করে বসে …

Leave a Reply

Your email address will not be published.