লিফলেট

ইসলাম নিয়ে মন্তব্য

ইসলাম হারিয়ে গেছে ১৩০০ বছর আগে।যেটা চলছে এটা খৃষ্টান ও অগ্নীপূজকদের বানানো ভুল,বিকৃত,মরা,পচা,দূর্গন্ধময়, বিপরীতমুখী এবং অশান্তি সৃষ্টিকারী একটি নারকীয় সিস্টেম। এর অনুসারীরা জাহান্নামৌ। অতএব ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করানো ও আল্লাহ’তে বিশ্বাসী করানো ইসলাম ও হেযবুত তওহীদের কাজ নয়।
সূত্র: এসলাম শুধু নাম থাকবে পৃ:৬১/৭৫ আল্লাহর মো’জেজা পৃ: ৯/৫৪/৫৬ সওমের উদ্দেশ্য পৃ:১৩ ইসলামের প্রকৃত সালাহ-৭/২০/৬১ এসলামের প্রকৃত রুপরেখা-২২ আসুন সিস্টেমটাকেই পাল্টাই-২০ ইসলাম কেন আবেদন হারাচ্ছে পৃ:৫১

মুসলিম নিয়ে মন্তব্য

আকীদা বিকৃতির ফলে বর্তমানের সকল মুসলমান আবু জেহেলের মত কাফের, মুশরিক এবং ইহুদীদের চেয়েও মালাউন। মুসলিমরা আবর্জনা এবং গলিত লাশ, দুর্গন্ধময় এবং জাহান্নামী এবং এদের আমল বিধর্মীদের মত নিস্ফল ও অনর্থক। মুসলিমদের কারণেই মানুষ নাস্তিক হচ্ছে। অতএব মুসলিম সমাজ থেকে আমাদের আলাদা হাতে হবে।
সূত্র: এসলামের প্রকৃত রুপরেখা-৪৮/৫৯ এসলাম শুধু নাম থাকবে পৃ:৭৭/৮৩/১০৮ এ জাতির পায়ে লুটিয়ে পড়বে বিশ্ব পৃ:১১ ইসলামের প্রকৃত সালাহ-৫৯/৬০ শ্রেনীহীন সমাজ সাম্যবাদ প্রকৃত ইসলাম পৃ:১৪৮ ইসলাম কেন আবেদন হারাচ্ছে পৃ:৫৪  তাওহীদ জান্নাতের চাবি পৃ:২৪ বিকৃত সুফিবাদ পৃ:৩৬ মহাসত্যের আহ্বান (ছোট) পৃ:৬/১০ সূত্রাপুরে এমামের ভাষণ পৃষ্ঠা-২০ গনমাধ্যমের করণীয়-৫৯

কুরআন নিয়ে মন্তব্য

কুরআনের আত্মা হারিয়ে গেছে এবং অর্থ পাল্টে গেছে।
সূত্র: সূত্রাপুরে এমামের ভাষণ পৃষ্ঠা-১৯ ইসলাম কেন আবেদন হারাচ্ছে পৃষ্ঠা-৬

ধর্ম সংক্রান্ত মন্তব্য

পৃথিবীর সকল ধর্ম বিষাক্ত। সকল সমস্যা,অশান্তি ও জঙ্গীবাদের মূল কারণ ধর্ম। সকল ধর্মাবলম্বীরা মোশরেক,দাজ্জালের অনুসারী ও জাহান্নামী। কিন্তু নাস্তিকরা ধার্মিক ও মুত্তাকি। অতএব ধর্ম থেকে মুখ ফিরিয়ে নেয়াটাই অবশ্যকর্তব্য।
সূত্র: জঙ্গিবাদ সংকট পৃষ্ঠা-৬৬ ধর্মবিশ্বাস পৃষ্ঠা-৫/১৫ আদর্শিক লড়াই পৃষ্ঠা-৫ ধর্ম ব্যবসার ফাঁদে পৃষ্ঠা-১৩৯ সবার উর্ধ্বে মানবতা পৃ:১১ সম্মানিত আলেমদের প্রতি পৃ:২ শিক্ষাব্যবস্থা পৃষ্ঠা-১৭/৬৪ শ্রেণীহীন সমাজ সাম্যবাদ প্রকৃত ইসলাম পৃষ্ঠা-৯/১১ তাকওয়া ও হেদায়াহ পৃ:৭

যেকোনো ধর্ম পালন করেই জান্নাত যাওয়া যাবে।

পৃথিবীর সকল ধর্মই সত্য এবং আল্লাহর প্রেরিত ধর্ম। কোন ধর্মের মূলভিত্তি পাল্টায়নি। হিন্দুদের সনাতন ধর্মই মূলত কুরআনে বর্ণিত দ্বীনুল কাইয়্যেমাহ। গিতা,বেদ, ত্রিপিটক ইত্যাদি আল্লাহর প্রেরিত গ্রন্থ। শ্রীকৃষ্ণ, রামচন্দ্র, যুধিষ্ঠির, মনু, বুদ্ধদেব সবাই নবি ছিলেন। মনু মূলত নূহ আঃ এবং যুধিষ্ঠির মূলত ইদ্রীস আঃ। সুতরাং অন্য ধর্ম মেনেও ওলী হওয়া যাবে এবং জান্নাতেও যাওয়া যাবে। অতএব কোন অমুসলিমকে অপবিত্র বলা মূর্খতা।
সূত্র: সবার উর্ধ্বে মানবতা-৪/৫ মহাসত্যের আহ্বান পৃষ্ঠা-৫১/৮৩/১০৪/১০৫ গনমাধ্যমের করণীয় পৃষ্ঠা-৫৯ শ্রেণীহীন সমাজ সাম্যবাদ প্রকৃত ইসলাম পৃ:৬৫ শোষণের হাতিয়ার-৬২-৬৩ বিকৃত সুফিবাদ পৃষ্ঠা-৯/২৫ দৈনিক বজ্রশক্তি’ ২/২/২০১৬ ঈ:

মানবতাই ধর্ম

প্রকৃত ধর্ম “মানবতা”। নামাজ রোযা, হজ্ব, দোয়া মানুষের মূল এবাদত নয়।মানবসেবাই ইবাদত,এ জন্যই আল্লাহ আমাদের সৃষ্টি করেছেন। মানবসেবা না করলে তার কোন ইবাদত কবুল হবে না। সে কাফের এবং জাহান্নামী। তবে মানবসেবা করলে অমুসলিম,বামপন্থীরাও জান্নাতী। তাই কারো ধর্ম পরিবর্তন করানো ও আল্লাহ’তে বিশ্বাসী বানানো ইসলাম ও হেযবুত তওহীদের কাজ নয়।
সূত্র: শ্রেণীহীন সমাজ সাম্যবাদ প্রকৃত ইসলাম পৃ:৫২ আসুন সিস্টেমটাকেই পাল্টাই-১৮ আদর্শিক লড়াই পৃষ্ঠা-১৪ জঙ্গিবাদ সংকট পৃষ্ঠা-৫৫/৫৬/৭৬ মহাসত্যের আহ্বান পৃষ্ঠা-৭৫/১০৪ ধর্মবিস্বাস পৃ:১২/৩ গণমাধ্যমের করণীয়-৫৪/৯০

পন্নীর উপর মোজেজা সংগঠন

নবীদের সাথে নির্দিষ্ট “মো’জেজা” পন্নীর দ্বারাও সংগঠিত হয়েছে, যা মুহাম্মাদ স: এর মোজেজার মত ও কুরআনের মত অকাট্য। যারা বিশ্বাস করবে না, তারা মুনাফিক, বেঈমান এবং জাহান্নামী। পন্নীর মোজেজা নবীদের চেয়ে বেশী। মোজেজার ভাষণ মূলত আল্লাহরই কথা যা পন্নীর মুখ দিয়ে আল্লাহ নিজে বলেছেন।
সূত্র: আল্লাহর মোজেজা হেযবুত তওহীদের বিজয় ঘোষণা পৃষ্ঠা-৭/৩৩/২৪/২৫/৫৭/৯১/৬২/৬৩/৬৫/৬৭/৭৯

হেযবুত তওহীদ নিয়ে দৃষ্টিভঙ্গি

একমাত্র হেযবুত তওহীদই স্বয়ং আল্লাহর সৃষ্ট সত্য ও আসল ধর্ম। আল্লাহ নিজে পন্নীকে সব ধর্মের মানুষের জন্য এমাম মনোনীত করে বলেছেন, হেযবতু তওহীদ দিয়েই সমগ্র দুনিয়ায় তাঁর দ্বীন প্রতিষ্ঠা করবেন। পন্নীর জন্য নবিদের চেয়ে বেশি দোয়া করা উচিৎ। মানুষের মুক্তির একমাত্র পথ হেযবুত তওহীদ। হেযবুত তওহীদ মাযহাব ধ্বংস করতে চায়। হেযবুত তওহীদের কর্মীদের দুই শহীদের মর্যাদা।তাদের লাশ পচে না,গলে না। তাদের জন্য জান্নাত নিশ্চিত এবং তাদের নাম শেষে রাদিয়াল্লাহু আনহুম বলতে হবে।
সূত্র: ইসলাম কেন আবেদন হারাচ্ছে পৃ:২২
মহাসত্যের আহ্বান পৃ:১১/১২/২৪ এ জাতির পায়ে লুটিয়ে পড়বে বিশ্ব পৃষ্ঠা-৩৩/৩৯ আদর্শিক লড়াই পৃ:১৩/১৫ আসুন সিস্টেমটাকে পাল্টাই পৃষ্ঠা-১৮ মহাসত্যের আহ্বান (ছোট) পৃ:১৪ আল্লাহর মো’জেজা পৃ: ৫৪/৬৩/৬৪/৮৩ গঠনতন্ত্র পৃষ্ঠা-১৫ তওহীদ জান্নাতের চাবি পৃষ্ঠা-৩১

আম্বিয়ায়ে কেরাম নিয়ে মন্তব্য

সকল নবীরা আল্লাহর দেয়া দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়েছেন। কিন্তু পন্নীকে দিয়ে করাবেন বলে আল্লাহ ওয়াদা করেছেন।
সূত্র: আল্লাহর মো’জেজা হেযবুত তওহীদের বিজয় ঘোষণা-৬৮

ঈসা আঃ নিয়ে মন্তব্য

খৃষ্ট ধর্মের আবিস্কারক হলেন “পল”। ঈসা আঃ মুসার আঃ আনীত ধর্ম প্রচার করতে এসেছিলেন। কোন নতুন ধর্ম সৃষ্টি করেননি।ঈসা আ: তাঁর উম্মতের ভুলের তিনি নিজেও কিছুটা অপরাধী।
সূত্র: শ্রেণীহীন সমাজ সাম্যবাদ প্রকৃত ইসলাম পৃ:১৫/১৭ আকিদা পৃষ্ঠা-১৪ দাজ্জাল পৃ: ৫৫

নবিজির স: দায়িত্ব পালন ও রহমাতুল্লিল আলামিন সংক্রান্ত অভিযোগ।

বিশ্বনবী সঃ আল্লাহর দেয়া দায়িত্ব পূর্ণ করতে পারেননি। তিনি রহমাতুল্লিল আলামিনও নন।
সূত্র: এসলাম শুধু নাম থাকবে পৃষ্ঠা-১০৪-১০৫ আকিদা পৃ:১৯ শ্রেণীহীন সমাজ সাম্যবাদ প্রকৃত ইসলাম পৃষ্ঠা-১১৫/১৪৮

সাহাবায়ে কেরামের রা: সমালোচনা

সাহাবীদের আকীদায় বিকৃতি ঢুকে ছিল। তারা জাহেলি যুগের কালচার ও অনুচিৎ বিভাজন সৃষ্টি করেছিলেন। তারা ভুলে গিয়েছিলেন তাদের কি উদ্দেশ্যে নবিজি স: তৈরি করেছিলেন। তারা পথভ্রষ্ট হয়েছিলেন, মোমেন থাকতে পারেননি।পৃথিবীর সকল ফিৎনার জন্য সাহাবারাই দায়ী। ওহুদে তাঁরা নবির স: অবাধ্য হয়েছিলেন। মেরাজের ঘটনায় আবু বকর রা: ছাড়া প্রায় সব সাহাবীর ঈমান হারা হয়েছিলেন।তাদের চরিত্র ছিল যোদ্ধার ও বিস্ফোরনমুখী। একবার তারা নবিজির ঘরে পাথর মেরেছিলেন। মুয়াবিয়া রা: ছিলেন একজন খুনি।
সূত্র: এসলাম শুধু নাম থাকবে পৃষ্ঠা-১০০ এ জাতির পায়ে লুটিয়ে পড়বে বিশ্ব পৃ:৩৮/৬৬
ইসলামের প্রকৃত রূপরেখা পৃষ্ঠা-৭-৮ ধর্মব্যবসার ফাঁদে পৃ:১২০ আকিদা পৃ:১৯ বিকৃত সুফিবাদ পৃ:২০/৩৩ আল্লাহর মো’জেজা পৃ: ৩৫/৩৬  সওমের উদ্দেশ্য পৃ:১৬ শোষণের হাতিয়ার পৃ:৮৮ শিক্ষাব্যবস্থা পৃ:৫-৬

কবীরা গুনাহর হিসাব দেয়া লাগবে না।

তাওহীদে বিশ্বাস থাকলে হত্যা,চুরি,ব্যভিচারসহ পৃথিবীভর্তি কবীরা গুনাহ থাকলেও আল্লাহ তাকে জাহান্নামে দেবেন না।
সূত্র: প্রিয় দেশবাসী পৃষ্ঠা-৬৫ আকীদা-৭ তওহীদ জান্নাতের চাবি-১৩/১৫

জন্মননিয়ন্ত্রণ নিয়ে দৃষ্টিভঙ্গি

জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণে মানুষের আত্মা নষ্ট হয়ে গেছে, ফলে চুরি ও খুনের মত কাজে লিপ্ত হয়ে সব ধ্বংশ হয়ে যাচ্ছে।অতএব জন্মনিয়ন্ত্রণ করা আবশ্যক।
সূত্র: গণমাধ্যমের করণীয় পৃ:৩৭

সহশিক্ষা ও ইসলাম।

সহশিক্ষা (নারী পুরুষ এক সাথে শিক্ষা অর্জন করা) ইসলামের সম্মত।
সূত্র: আসুন সিস্টেমটাকে পাল্টাই পৃষ্ঠা-১৩
শিক্ষাব্যবস্থা পৃষ্ঠা-৬ চলমান সংকট নিরসনে হেযবুত তওহীদের প্রস্তাবনা পৃষ্ঠা-৮

দ্বীনের বিনিময় নেয়া।

দ্বীনের কাজে বিনিময় নেয়া হারাম। যারা নেয় তারা পথভ্রষ্ট,জাহান্নামী। যারা জায়েয করেছেন তারা বেঈমান। বিনিময় নিলে দ্বীন বিকৃত হয়ে যায়। তাদের পেছনে নামাজ,দোয়া হয় না।তাদের ওয়াজে কেউ পরিবর্তন হয় না। তারা আল্লাহর কাছে কোন প্রতিদান পাবে না।
সূত্র: এসলাম শুধু নাম থাকবে পৃ:৪২/৭০ হলি আর্টিজেনের পর-৮ শ্রেণীহীন সমাজ সাম্যবাদ প্রকৃত ইসলাম পৃ:১৭৬ আক্রান্ত দেশ আক্রান্ত ইসলাম পৃ:৮ ধর্মব্যবসার ফাঁদে পৃ:৬৫/৭০/৮১

আল্লাহর সিফাত বা গুনাবলী ও মানুষ

মানুষের মধ্যে আল্লাহর রুহ, স্বাধীন ইচ্ছাশক্তি এবং সকল গুনাবলী রয়েছে।
সূত্র: আকিদা পৃ:৫ প্রিয় দেশবাসী পৃষ্ঠা-৬৭ গঠনতন্ত্র পৃ:৯

দাজ্জাল নিয়ে ব্যাখ্যা

দাজ্জাল কোন মানুষ আকৃতির নয়।বরং বর্তমানের ইহুদী-খৃষ্টান সভ্যতাই হচ্ছে দাজ্জাল।
সূত্র: দাজ্জাল? ইহুদী খৃষ্টান সভ্যতা।

পোষাক নিয়ে মন্তব্য

গণতন্ত্রের মত ইসলামের কোন নির্দিষ্ট পোশাক থাকতে পারে না। আরবের কাফেরদের পোষাক আর নবিজি সঃ ও সাহাবাদের পোষাক একই রকম ছিল। নবিজি ভিন্ন কোন পোশাকের আদেশ দেননি।
সূত্র: শ্রেণীহীন সমাজ সাম্যবাদ প্রকৃত ইসলাম পৃ:৪৮ এসলাম শুধু নাম থাকবে পৃ:১৩৪ ধর্মব্যবসার ফাঁদে পৃ:১০৯

নারী সংক্রান্ত দৃষ্টিভঙ্গি

বোরখা শয়তানের চক্রান্ত। বোরখা পরিয়ে নারীদের বাক্সবন্দি করা হয়েছে। নারী নেতৃত্ব হারাম নয়। সর্বস্থলে ঈদগাহে, মসজিদে সামাজিক পরামর্শে পুরুষের সাথে সমানতালে নারীদেরও আসতে হবে।
সূত্র: ইসলামের প্রকৃত রূপরেখা পৃষ্ঠা-১৮ গণমাধ্যমের করণীয় পৃ: ৬২/৬৩ /৬৬ধর্মব্যবসার ফাঁদে পৃ:১১০

দাঁড়ি নিয়ে মন্তব্য

দাঁড়ির সাথে ইসলামের কোন সম্পর্কই নেই। এটা মূলত মক্কার কাফের পৌত্তলিকদের প্রথা যা অমুসলিম,নাস্তিকরাও রাখে। নবিজি স: নিজেও দাঁড়ি ছাটতেন। মূলত দাড়ির গুরুত্ব এসেছে জাল হাদিসের মাধ্যমে। এখন মানুষকে বলতে হবে “দাড়ির কথা বাদ দিন।”
সূত্র: এসলাম শুধু নাম থাকবে পৃ:১৩১/১৩৬/১৩৭ ধর্মব্যবসার ফাঁদে পৃ:১৩১ প্রিয় দেশবাসী পৃ:১১৩

সুন্নাতের ভুল ব্যাখ্যা

সুন্নাত মানে জিহাদ। নবিজির স: ব্যক্তিগত খাওয়া,শোয়া,ওঠা,বসা অভ্যাস, পছন্দ-অপছন্দ পোশাক,টুপি,পাগড়ী,  ইত্যাদী সুন্নাত নয়। এ গুলোর সাথে ইসলামের কোন সম্পর্কই নেই।
সূত্র: আকীদা পৃ:১৬/১৭ এসলামের প্রকৃত রুপরেখা-৩৮

সংস্কৃতি ও উৎসব

কোন বাদ্যযন্ত্র হারাম নয়। নবিজি স: নিজেও বাজনাসহ গান শুনতেন। নাটক,সিনেমা,অভিনয়, নৃত্য, নাচ, চিত্রাঙ্কন, ভাস্কর্য নির্মাণ হালাল। নবান্ন উৎসব,পহেলা বৈশাখসহ সকল উৎসব আল্লাহর হুকুম অনুযায়ী হয়।
সূত্র: গনমাধ্যমের করণীয় পৃষ্ঠা-৫৯/৬০ গঠনতন্ত্র পৃ:৩৩-৩৪ মহাসত্যের আহ্বান পৃ:৯৪/৯৬/৯৭ আসুন সিস্টেমটাকেই পাল্টাই-১২

জিহাদ ও যুদ্ধের অপব্যাখ্যা

জিহাদ হলো আসল ইবাদত। নামাজ, রোজা,হজ্ব,যাকাত কোন ইবাদত নয়, এগুলো জিহাদের ট্রেনিং। জিহাদ না করে যতই ইবাদত করুক সব অনর্থক। জিহাদ ছেড়ে দিলে সে কাফের, মুশরিক। যোদ্ধা না হলে ইসলামের প্রাথমিক সদস্যই হওয়া যায় না। অস্ত্রের সাথে সম্পর্ক না থাকলে সে জান্নাতে যেতে পারবে না। জিহাদ আত্মরক্ষামূলক নয় আক্রমনাত্মক।মুজাহিদদের মর্যাদা নবিদের চেয়ে বেশি। ফকীহরা জিহাদের অংশ অবহেলা করে বাদ দিয়েছেন।
সূত্র: ইসলামের প্রকৃত সালাহ-১৬/১৮/২২/৪৫/৪৬/৪৭ এসলামের প্রকৃত রুপরেখা-১০/৪৯/৪০ বর্তমানের বিকৃত সুফিবাদ পৃ:৫৪

নামাজ
নামাজ কোন ইবাদত নয়,জিহাদের ট্রেনিং।
জিহাদ ছাড়া নামাজের কোন দাম নেই।বর্তমানে নামাজের উদ্দেশ্য বিকৃত হয়ে গেছে। বর্তমানের নামাজ মরা নামাজ।নামাজ জান্নাতের চাবি নয়।
সূত্র: ইসলামের প্রকৃত সালাহ-২২/৩০/৩২/৫৪/৫৫/৫৭/৬৬

রোজা

রোজা নষ্ট হয়ে গেছে বহু আগে।’
চরিত্র ঠিক না হলে রোজা রেখে লাভ নেই। রোজা না রাখলে শাস্তি হবে এমন কথা কোরআনে নেই।
সূত্র: সওমের উদ্দেশ্য-১০/১১/১২

হজ্ব

হজ্ব কোন ইবাদত নয়, মুসলিমদের বাৎসরিক সম্মেলন।
সূত্র: আসুন সিস্টেমটাকেই পাল্টাই-১৪

আলেম ও ফকীহদের নিয়ে সমালোচনা

আলেমরা সবচে হাসির পাত্র, ঘৃণিত, নিকৃষ্ট ও নেতৃত্বের অযোগ্য।  আলেমদের নামাজ হয় না। আলেম,ফকীহ ও সুফিরা ইসলামকে কঠিন ও বিকৃত করে ধ্বংস করেছে এবং কুফরকে ইবাদত মনে করে কাজ করেছে। আলেমরা সত্যের বিরোধিতা করেন।তারা ইহুদী পুরোহীত ও আবু জেহেলেরমত। তাদের অনুসারীরা জাহান্নামী। তাদের হাতে ধর্মের নিয়ন্ত্রণ রাখা যাবে না। যারা দীনের বিনিময় নেন তারা আলেম নন। এরা খৃষ্টানদের এজেন্ট।এদের কারণে নবির নাম কালিমালিপ্ত হয়েছে। আলেমদের ফাতাওয়ার কারণে জাতি মুর্খ হয়ে জাহিলিয়াতকেও ছাড়িয়ে গেছে। ফাতাওয়া দেয়ার অধিকার তাদের নেই। তারা অপদার্থ ওয়ারীশ। আলেমরা দাজ্জালকে চিনতে ব্যর্থ হয়েছেন। মাযহাব অনৈসলামিক কাজ এবং মাযহাব উম্মাহকে ৭২ ফিরকায় তৈরি করে বিভক্ত করেছে। ফকীহদের কারণে মুসলিমরা অপমানিত।হেযবুত তওহীদ মাযহাব ধ্বংস করতে চায়।
সূত্র: আসুন সিস্টেমটাকেই পাল্টাই-৯ ইসলামের প্রকৃত সালাহ-৩৫ এসলাম শুধু নাম থাকবে পৃ:২৩/২৭/২৮/৩৫/৩৬/৪৯/৯৩/৯৪/৯৭/১০১/১২৫/১৩২ গণমাধ্যমের করণীয় পৃ:৯২ এ জাতির পায়ে লুটিয়ে পড়বে বিশ্ব পৃ:৩৭ আদর্শিক লড়াই পৃ:৭ মহাসত্যের আহ্বান পৃ:৩৪ আক্রান্ত দেশ ও ইসলাম পৃ:১৮ জঙ্গীবাদ সঙ্কট পৃ:৩৯/৬৬ ধর্মব্যবসার ফাঁদে পৃ:১৮/৯৯/১১৩ তওহীদ জান্নাতের চাবি-২৪ এসলামের প্রকৃত রুপরেখা-৩১ হলি আর্টিজেনর পর-৯ ধর্মবিশ্বাস পৃষ্ঠা-১৯ সবার ঊর্ধ্বে মানবতা পৃষ্ঠা-৫ শিক্ষাব্যবস্থা পৃষ্ঠা-১৯/৫৬

তাযকিয়াতুন নফস

আধ্যাতিক ঘষামাজা ইসলাম ও নবির স: শিক্ষা নয়,বরং  খ্রিষ্টানদের শেখানো। এগুলো বেদাত। সুফিরা ধর্মকে বিকৃত করেছে।
সূত্র: এসলাম শুধু নাম থাকবে পৃ:১১২
হলি আর্টিজেনের পর-১৩ বর্তমানের বিকৃত সুফিবাদ পৃষ্ঠা-১৭ প্রিয় দেশবাসী পৃ:১১৪ শ্রেণীহীন সমাজ সাম্যবাদ প্রকৃত ইসলাম পৃষ্ঠা-৫৭

ইবলিসের চ্যালেঞ্জ ও আল্লাহর পরাজয়

ইবলিস আল্লাহকে চ্যালেঞ্জ দিয়েছিল। আল্লাহও ইবলিসের চ্যালেঞ্জ গ্রহণ করেছিলেন। কিন্তু ইবলিসের কাছে আল্লাহ হেরে গেছেন।
সূত্র: তওহীদ জান্নাতের চাবি-৪ প্রিয় দেশবাসী পৃষ্ঠা-৫৯ দাজ্জাল পৃ:১৬ এসলামের প্রকৃত রুপরেখা-৩৭/৩৪ ধর্মব্যবসার ফাঁদে পৃ:১৩১

পন্নী সাহেব ৭১ এর রাজাকার

বায়াজীদ খান পন্নী ছিলেন বড় মাপের রাজাকার। টাঙ্গাঈলের ৪ ভাগ এক ভাগ রাজাকার বানিয়েছিলেন তিনি ও তার বাবা। নারী ধর্ষণ,হত্যা,লুন্ঠন ও ঘরবাড়ি জালানো ছিল তার কর্ম। স্বাধীনতার পর তাকে দড়ি দিয়ে বেধে জরিমানা,বেত্রাঘাত ও ১২ মাইল পায়ে হাটার মাধ্যমে বিচার করেছিলেন মুক্তিযোদ্ধারা।
সূত্র: স্বাধীনতা ‘৭১ পৃ: ৬৪৮/৭০৬-৭১০
শ্রেণিহীন সমাজ সাম্যবাদ প্রকৃত ইসলাম পৃ:১৮৪/১৮৬

Check Also

ইতিকাফের ফযিলত عن عائشة أن النبي صلى الله عليه وسلم قال من اعتكف إيمانا واحتسابا …

Leave a Reply

Your email address will not be published.