বিড়াল পালা কি বৈধ?

বিড়াল পালা জায়েয। হাদীস শরীফে আছে,

عن أَنَسَ بْن مَالِكٍ رضى الله عنه يَقُولُ إِنْ كَانَ النَّبِيُّ صلى الله عليه وسلم لَيُخَالِطُنَا حَتَّى يَقُولَ لأَخٍ لِي صَغِيرٍ يَا أَبَا عُمَيْرٍ مَا فَعَلَ النُّغَيْرُ

অর্থ: হযরত আনাস ইবনু মালিক (রাঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আমাদের সাথে মেলামেশা করতেন, এমনকি তিনি আমার এক ছোট ভাইকে জিজ্ঞেস করলেনঃ হে আবূ ‘উমায়র! কেমন আছে তোমার নুগায়র (পাখি)।
সূত্র: সহিহ বুখারী হাদিস: ৬১২৯

এই হাদিস থেকে বুঝা যায় যে, পাখির মত বিড়াল পালাও জায়েয। তবে পোষা বিড়ালটির খাবারের ত্রুটি করা যাবে না। কারণ হাদিস শরীফে এসেছে,

عَنْ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ عُمَرَ رضى الله عنهما أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صلى الله عليه وسلم قَالَ عُذِّبَتِ امْرَأَةٌ فِي هِرَّةٍ سَجَنَتْهَا حَتَّى مَاتَتْ فَدَخَلَتْ فِيهَا النَّارَ لاَ هِيَ أَطْعَمَتْهَا وَلاَ سَقَتْهَا إِذْ حَبَسَتْهَا وَلاَ هِيَ تَرَكَتْهَا تَأْكُلُ مِنْ خَشَاشِ الأَرْضِ

অর্থ: হযরত আবদুল্লাহ ইবনু ‘উমর রা. হতে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, একজন মহিলাকে একটি বিড়ালের কারণে আযাব দেয়া হয়েছিল। সে বিড়ালটিকে বেঁধে রেখেছিল। সে অবস্থায় বিড়ালটি মরে যায়। মহিলা ঐ কারণে জাহান্নামে গেল। কেননা সে বিড়ালটিকে দানা-পানি কিছুই দেয়নি এবং ছেড়েও দেয়নি যাতে সে নিজ খুশিমত যমিনের পোকা-মাকড় খেয়ে বেঁচে থাকত।
সসূত্র: সহীহ বুখারী, হাদীস ৩৪৮২

লেখক

মুফতী রিজওয়ান রফিকী

Check Also

IMG 20220418 125840

পুরুষের জন্য মেহেদী ব্যবহার হারাম।

সাজ-সজ্জার উদ্যেশ্যে পুরুষদের জন্য বিয়ের সময় হোক বা অন্য যেকোনো সময় হোক হাতে-পায়ে মেহেদী ব্যবহার …

Leave a Reply

Your email address will not be published.