ওয়াজ

বান্দার প্রতি আল্লাহর দয়া

مَنْ عَمِلَ سَيِّئَةً فَلَا يُجْزَى إِلَّا مِثْلَهَا অর্থ: যে মন্দ কর্ম করে, সে কেবল তার অনুরূপ প্রতিফল পাবে, সুরাঃ গাফের আয়াত: ৪০ নেকীর কাজটি করলে পুরস্কার। নবীজি সা. বলেন, বান্দা যখন নেকীর কাজটি করে, তখন, ১. গুনাহ মাফ হয়। আল্লাহ তা’য়ালা বলেন, إِنَّ الْحَسَنَاتِ يُذْهِبْنَ السَّيِّئَاتِ ذَلِكَ ذِكْرَى لِلذَّاكِرِينَ অর্থ: পূর্ণ কাজ অবশ্যই পাপ দূর করে দেয়, যারা স্মরণ রাখে …

Read More »

গুনাহ-তওবা ও আল্লাহর দয়া।

  স্বামীর সামনে স্ত্রী পরোকিয়া করে না, বাবার সামনে সন্তান অপরাধ করে না, শিক্ষকের সামনে ছাত্র অপরাধ করে না, মালিকের সামনে কর্মচারী ডিউটি ফাঁকি দেয় না। সরকারের সৈন্য পুলিশ থাকলে তো অপরাধ করে না। কিন্তু আল্লাহর সৈনিক ফিরিস্তাদের সামনে কেমনে অপরাধ করো? জানেন? প্রত্যেক বান্দার সাথে রবের সৈনিক নিযুক্ত রয়েছেন। কেরামান-কাতিবিন। وَإِنَّ عَلَيْكُمْ لَحَافِظِينَ كِرَامًا كَاتِبِينَ يَعْلَمُونَ مَا تَفْعَلُونَ অর্থ: …

Read More »

উম্মতে মুহাম্মাদীর বৈশিষ্ট্য

নাজাতের জন্য সাক্ষ্য আগের উম্মতের জন্য ১০০ জন সততার সাক্ষি দিলে জান্নাত। قالت عائشة رضي الله عنها قال رسول الله صلى الله عليه وسلم إن الأمم السالفة المائة أمة إذا شهدوا لعبد بخير وجبت له الجنة অর্থাৎ হযরত আয়েশা রা. থেকে বর্ণিত নবীজি সা. বলেন, পূর্বের যুগের উম্মতের কোনো ব্যক্তির জন্য ১০০ মানুষ যদি তার সততার সাক্ষি দিতো, তাহলে তার …

Read More »

ঈমানদার ও কাফেরের মাঝে পার্থক্য

এই পৃথিবীতে সবচে দামি হলো, মানবজাতী। পবিত্র কুরআনে পাকে আল্লাহ তা’য়ালা বলেছেন, وَ لَقَدۡ کَرَّمۡنَا بَنِیۡۤ اٰدَمَ وَ حَمَلۡنٰهُمۡ فِی الۡبَرِّ وَ الۡبَحۡرِ وَ رَزَقۡنٰهُمۡ مِّنَ الطَّیِّبٰتِ وَ فَضَّلۡنٰهُمۡ عَلٰی کَثِیۡرٍ مِّمَّنۡ خَلَقۡنَا تَفۡضِیۡلًا অর্থ: আর আমি তো আদম সন্তানদের সম্মানিত করেছি এবং আমি তাদেরকে স্থলে ও সমুদ্রে বাহন দিয়েছি এবং তাদেরকে দিয়েছি উত্তম রিয্ক। আর আমি যা সৃষ্টি করেছি …

Read More »

ঈমানদার ও কাফেরের মাঝে পার্থক্য

নূর চমকানো হাশরে বেঈমানদের অবস্থা: হাশরের ময়দানে বেঈমানদের অবস্থা হবে খুব ভয়াবহ। দুনিয়াতে যেমন আল্লাহর বিধান সামনে থাকার পরও না দেখার ভান করে নিজের খুশি মত চলেছে, কিয়ামতেও তাদেরকে বাস্তবে অন্ধ করে তোলা হবে। মহান রব বলেন, وَمَنْ أَعْرَضَ عَن ذِكْرِي فَإِنَّ لَهُ مَعِيشَةً ضَنكًا وَنَحْشُرُهُ يَوْمَ الْقِيَامَةِ أَعْمَى قَالَ رَبِّ لِمَ حَشَرْتَنِي أَعْمَى وَقَدْ كُنتُ بَصِيرًا قَالَ كَذَلِكَ أَتَتْكَ …

Read More »

তাকওয়ার পুরস্কার

তাকওয়ার ফযিলত: কোনো এলাকায় যদি ভুমিকম্প হয়, তাহলে সে ভুমিকম্পের ধাক্কায় অত্র এলাকার ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়ে যায়। ফলে মানুষের পক্ষ থেকে মোটামুটি তিন ধরণের সহযোগিতা পাওয়া যায়। ১. সরকার নাগরীকের ভেঙ্গে যাওয়া ঘর বাড়ি গুলো পূনরায় ঠিক করে দেন। অর্থাৎ তার জিবনের এ কঠিন বিষয় সহজ করে দেন। ২. সরকারী ভাবে এবং আজ জনতার পক্ষ থেকে ত্রাণ পৌছানো হয়। ৩. …

Read More »

সর্বত্র ইসলামী আইন মানা

নিজ প্রতিষ্ঠান—ব্যক্তজিবন-পুরো যমিন سَبَّحَ لِلَّهِ مَا فِي السَّمَاوَاتِ وَمَا فِي الْأَرْضِ وَهُوَ الْعَزِيزُ الْحَكِيمُ চায়না মেশিন। আর হেডম আই দেহাইছি قَدْ جَاءكُم مِّنَ اللّهِ نُورٌ وَكِتَابٌ مُّبِينٌ يَهْدِي بِهِ اللّهُ مَنِ اتَّبَعَ رِضْوَانَهُ سُبُلَ السَّلاَمِ وَيُخْرِجُهُم مِّنِ الظُّلُمَاتِ إِلَى النُّورِ بِإِذْنِهِ وَيَهْدِيهِمْ إِلَى صِرَاطٍ مُّسْتَقِيمٍ আল্লাহর আইন অমান্য করলে وَالَّذِينَ كَفَرُواْ أَوْلِيَآؤُهُمُ الطَّاغُوتُ يُخْرِجُونَهُم مِّنَ النُّورِ إِلَى الظُّلُمَاتِ أُوْلَئِكَ أَصْحَابُ …

Read More »

উম্মতে মুহাম্মাদীর শ্রেষ্টত্ব।

জান্নাতীদের সংখ্যা: ভুল-ত্রুটি মাফ আগের উম্মতের ক্ষমা করা হতো না। وقد كان بنو إسرائيل إذا نسوا شيئاً مما أمروا به أو أخطؤوا عجلت لهم العقوبة অর্থাৎ বনি ইসরাইল সম্প্রদায় যখন তাদের উপর নির্দেশিত বিষয়গুলো ভুলে যেত অথবা ভুলে (কোনো গুনাহ) করতো তখন সাথে সাথে আযাব চলে আসতো। সূত্র: মাওয়াহেবে লাদুনিয়া খ: ২ পৃ: ৩২৬ তাফসীরে বগবী খ: ১ পৃ: ৩৫৭ …

Read More »

তওবা সম্পর্কে ইবরাহীম বিন আদহামের অমূল্য ৫টি নসিহত

  وروي أن رجلا جاء إلى إبراهيم بن أدهم، فقال له: يا أبا إسحاق! إني مسرف على نفسي، فاعرض علي ما يكون لها زاجرا ومستنقذا لقلبي. قال: إن قبلت خمس خصال وقدرت عليها لم تضرك معصية، ولم توبقك ثنا لذة. قال: هات يا أبا إسحاق! قال: أما الأولى، فإذا أردت أن تعصي الله عز وجل فلا تأكل رزقه. قال: فمن …

Read More »

আল্লাহ ভয়ের পুরস্কার

  আল্লাহ তা’য়ালা বলেন : وَمَنْ يَتَّقِ اللهَ يُكَفِّرْ عَنْهُ سَيِّئَاتِه وَيُعْظِمْ لَه أَجْرًا অর্থ: আর যে আল্লাহকে ভয় করে তিনি তার গুনাহসমূহ মোচন করে দেন এবং তার প্রতিদানকে বিশাল করে দেন। সুরা তালাক আয়াত: ৫ হাদিসের ভেতর এসেছে, عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ أَنَّ رَسُولَ اللهِ صلى الله عليه وسلم قَالَ يَقُولُ اللهُ إِذَا أَرَادَ عَبْدِي أَنْ يَعْمَلَ سَيِّئَةً فَلاَ تَكْتُبُوهَا …

Read More »