Home > হিজবুত তাওহীদ > অমুসলিমদের অপবিত্র বলা মু্র্খতা: হেযবুত তওহীদ।

অমুসলিমদের অপবিত্র বলা মু্র্খতা: হেযবুত তওহীদ।

মহান আল্লাহ ও তাঁর রসুল স: এবং সাহাবায়ে কেরামসহ তাবেয়ীগণ স্পষ্টভাবে অমুসলিমদেরকে নাপাক ঘোষণা করেছেন। কিন্তু যারা অমুসলিমদের নাপাক বলে থাকেন, তাদেরকে মূর্খ বলে সম্বোধন করলেন হেযবুত তওহীদ।

হেযবুত তওহীদের দাবি:

চলুন তাদের মন্তব্যটি আগে দেখা যাক। তারা লিখেছেন,

“এটা চরম মূর্খতার পরিচয় যে আমরা এক স্রষ্টা থেকে আগত এক জাতি, এক বাবা-মায়ের সন্তান হয়েও এভাবে একে অপরকে বিধর্মী মনে করে নিজেদের পায়ে নিজেরা কুড়াল মেরে চলেছি। আমরা এক ভাই আরেক ভাইকে অশুচি অপবিত্র মনে করি। আচারের নামে এই সব অনাচার ধর্মের সৃষ্টি নয় ধর্মব্যবসায়ীদের সৃষ্টি।”
সূত্র: মহাসত্যের আহ্বান পৃষ্ঠা-১০৪

ইসলাম কি বলে?

প্রিয় পাঠক! আমাদের জেনে রাখা উচিৎ “অমুসলিমদেরকে অপবিত্র ঘোষণা সর্বপ্রথম করেছেন আমাদের সৃষ্টিকর্তা মহান আল্লাহ তা’য়ালা।

এক.
পবিত্র কুরআনে মহান আল্লাহ বলেন,

یَـٰۤأَیُّهَا ٱلَّذِینَ ءَامَنُوۤا۟ إِنَّمَا ٱلۡمُشۡرِكُونَ نَجَسࣱ فَلَا یَقۡرَبُوا۟ ٱلۡمَسۡجِدَ ٱلۡحَرَامَ بَعۡدَ عَامِهِمۡ هَـٰذَاۚ

অর্থ: হে ঈমানদারগণ! মুশরিকরা তো অপবিত্র। সুতরাং এ বছরের পর তারা যেন মসজিদুল-হারামের নিকট না আসে। সুরা তাওবা আয়াত-২৮

উক্ত আয়াতে আল্লাহ তা’য়ালা নিজে অমুসলিম মুশরিকদের নাপাক বলেছেন। তাহলে হেযবুত তওহীদের দাবি অনুযায়ী আল্লাহও কি ধর্মব্যবসায়ী? নাউযুবিল্লাহ।

২. ইহুদী-খ্রস্টানরাও কি নাপাক?

ইহুদী-খ্রীস্টানদেরকেও মহান আল্লাহ ১৪০০ বছর আগেই মুশরিক ঘোষণা দিয়েছেন।মহান আল্লাহ বলেন,

وَقَالَتِ الْيَهُودُ عُزَيْرٌ ابْنُ اللّهِ وَقَالَتْ النَّصَارَى الْمَسِيحُ ابْنُ اللّهِ ذَلِكَ قَوْلُهُم بِأَفْوَاهِهِمْ يُضَاهِؤُونَ قَوْلَ الَّذِينَ كَفَرُواْ مِن قَبْلُ قَاتَلَهُمُ اللّهُ أَنَّى يُؤْفَكُونَ
اتَّخَذُواْ أَحْبَارَهُمْ وَرُهْبَانَهُمْ أَرْبَابًا مِّن دُونِ اللّهِ وَالْمَسِيحَ ابْنَ مَرْيَمَ وَمَا أُمِرُواْ إِلاَّ لِيَعْبُدُواْ إِلَـهًا وَاحِدًا لاَّ إِلَـهَ إِلاَّ هُوَ سُبْحَانَهُ عَمَّا يُشْرِكُونَ

অর্থ: ইহুদীরা বলে ওযাইর আল্লাহর পুত্র এবং নাসারারা বলে ‘মসীহ আল্লাহর পুত্র’। এ হচ্ছে তাদের মুখের কথা। এরা পূর্ববর্তী কাফেরদের মত কথা বলে। আল্লাহ এদের ধ্বংস করুন, এরা কোন উল্টা পথে চলে যাচ্ছে।তারা তাদের পন্ডিত ও সংসার-বিরাগীদিগকে তাদের পালনকর্তারূপে গ্রহণ করেছে আল্লাহ ব্যতীত এবং মরিয়মের পুত্রকেও। অথচ তারা আদিষ্ট ছিল একমাত্র মাবুদের এবাদতের জন্য। তিনি ছাড়া কোন মাবুদ নেই, তারা তাঁর শরীক সাব্যস্ত করে, তার থেকে তিনি পবিত্র।
সুরা তাওবা আয়াত-৩০-৩১

সে যুগে যদিও ইহুদী-খৃষ্টানদেরকে আহলে কিতাব বলা হতো, কিন্তু বর্তমানে তাদের কাছে সে আসমানী কিতাব নেই। উপরন্তু তারা বস্তুবাদে বিশ্বাসী মুশরিক।বরং তাদের অধিকাংশই এখন নাস্তিক। আর এ কথাটি শুধু আমি নই, হেযবুত তওহীদও স্বীকার করে থাকেন।তারা লিখেছেন,

  “বর্তমানে প্রতিটি ধর্মই বিষে পরিণত হয়েছে। খাদ্য হিসাবে মানুষকে সেই বিষাক্ত বর্জ্যই গেলানো হচ্ছে। এ কারণেই ধর্ম থেকে জন্ম নিচ্ছে জঙ্গিবাদ, ফতোয়াবাজি, সাম্প্রদায়িকতা, হুজুগে উম্মাদনা, ধর্ম নিয়ে অপরাজনীতি ইত্যাদি বহুবিধ ক্ষতিকারক জীবাণু, প্যারাসাইট।”
সূত্র: ধর্ম ব্যবসার ফাঁদে পৃষ্ঠা-১৩৯
“পূর্ববর্তী সব নবীদের (আ:) উপর অবতীর্ণ দীনগুলো ছিল স্থান ও কালের প্রয়োজনের মধ্যে সীমিত এবং ওগুলোর ভারসাম্য ছিল ওই পটভূমির প্রেক্ষিতে সীমিত। কিন্তু ওই দীনগুলোর ভারসাম্যও মানুষ নষ্ট করে ফেলেছে।”
সূত্র: বর্তমানের বিকৃত সুফিবাদ পৃষ্ঠা-১১।

সুতরাং যেহেতু ইহুদী-খ্রীষ্টানদের বর্তমান অবস্থা শিরকে ডুবন্ত, সেহেতু মহান আল্লাহর ফরমান অনুযায়ী তারাও নাপাক।

তিন. হযরত আনাস রা: থেকে উমর রা: এর বর্ণিত ঘটনা:

َ عن أنس بن مالك….فقالت له اخته انك رجس ولا يمسه الا المطهرون فقم فاغتسل او توضأ فقام عمر فتوضأ ثم اخذ الكتاب فقرأ طه

অর্থাৎ হযরত ওমর রাঃ যখন কাফের থাকা অবস্থায় বোনকে কুরআন দেখাতে বলেছিলেন, তখন তার বোন বলেছিলেন যে, তুমি নাপাক! আর এ গ্রন্থ পবিত্র ছাড়া কেউ ধরতে পারে না। অতএব তুমি যাও গোসল করো অথবা ওযু করো। অতপর ওমর রা: ওযু করে কোরআন ধরে সুরা ত্বহা পড়লেন।
সূত্র: মুস্তাদরাকে হাকেম হাদিস-6897 মুসনাদুল বাজ্জার খ:১ পৃ:৪০১ সুনানে দারা কুতনী খ:১ পৃ:১২১ সুনানুল কুবরা (বায়হাকী) খ:১ পৃ:৮৭ ৩৭৭

চার. হাদিস শরীফে এসেছে,

عن أبي هريرة بَعَثَ النبيُّ ﷺ خَيْلًا قِبَلَ نَجْدٍ، فَجاءَتْ برَجُلٍ مِن بَنِي حَنِيفَةَ يُقالُ له: ثُمامَةُ بنُ أُثالٍ، فَرَبَطُوهُ بسارِيَةٍ مِن سَوارِي المَسْجِدِ، فَخَرَجَ إلَيْهِ النبيُّ ﷺ فَقالَ: أطْلِقُوا ثُمامَةَ، فانْطَلَقَ إلى نَخْلٍ قَرِيبٍ مِنَ المَسْجِدِ، فاغْتَسَلَ، ثُمَّ دَخَلَ المَسْجِدَ، فَقالَ: أشْهَدُ أنْ لا إلَهَ إلّا اللَّهُ وأنَّ مُحَمَّدًا رَسولُ اللَّهِ

অর্থ: আবু হুরাইরাহ্ রা: হতে বর্ণিত, নবিজি: সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কয়েকজন অশ্বারোহী মুজাহিদকে নজদের দিকে পাঠালেন। তারা বানূ হানীফা গোত্রের সুমামাহ ইবনু উসাল নামক এক ব্যক্তিকে নিয়ে এসে তাকে মসজিদের খুঁটির সাথে বেঁধে রাখলেন। নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম তাঁর নিকট গেলেন এবং বললেনঃ সুমামাকে ছেড়ে দাও। (ছাড়া পেয়ে) তিনি মসজিদে নাবাবীর নিকট এক খেজুর বাগানে গিয়ে সেখানে গোসল করলেন, অতঃপর মসজিদে প্রবেশ করে বললেনঃ ‘‘আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, আল্লাহ ব্যতীত প্রকৃত কোন উপাস্য নেই এবং মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আল্লাহর রাসূল।’
সূত্র: সহিহ বুখারী হাদিস-৪৬২ মুসলিম-১৭৬৪

উক্ত হাদিস দুটো দেখলে বোঝা যায় যে, সাহাবায়ে কেরামও অমুসলিমদেরকে নাপাক জানতেন। এজন্য মুসলমান হওয়ার সময়ও তাঁরা গোসল করতেন।

পাঁচ.
বিশিষ্ট তাবেয়ী হাসান বসরী র: থেকে বর্ণিত,

عن الحسن قال انما المشركون نجس فلا تصافحوهم، فمن صافحَهم فليتوضَّأ

অর্থ: (বিশিষ্ট তাবেয়ী) হযরত হাসান বসরী র: বলেন, নিশ্চয় মুশরিকরা নাপাক। সুতরাং তাদের সাথে মুসাফাহা করো না। যে মুসাফাহা করবে সে যেন ওযু করে নেয়।
সূত্র: মুসান্নাফে ইবনে আবী শায়বাহ হাদিস-২৬১২০

শুধু মুসলমানই পবিত্র:

পক্ষান্তরে মুসলমানদের পবিত্র ঘোষণা করেছেন খোদ নবিজি স:।

فَقالَ رَسولُ اللهِ ﷺ إنَّ المُؤْمِنَ لا يَنْجُسُ

অর্থ: রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন, মুসলমান নাপাক হয় না।
সূত্র: সহিহ মুসলিম হাদিস-৩৭১ সুনানে নাসাঈ-২৬৯

সুতরাং এতগুলো আয়াত ও হাদিসের প্রতি বৃদ্ধাঙ্গুলি প্রদর্শন করে যারা ভিন্নমত পোষণ করে তারা কি বুঝাতে চায়? আল্লাহ,রসুল স:, সাহাবায়ে কেরাম এবং তাবেয়ীগণ সবাই মূর্খ ছিলেন? তাঁরাও কি ধর্মব্যবসায়ী ছিলেন? (আসতাগফিরুল্লাহ।) এটা কি কুফরী মন্তব্য নয়?

আমরা অমুসলিমদেরকে নাপাক মনে করলে এত সমস্যা, অথচ বাস্তবেও এটার প্রমাণ কুরআনে আছে, অথচ তারা অমুসলিমদের পশুও বলে থাকেন। তারা লিখেছেন,

“প্রাচ্যের জাতিগুলির ধর্মবিশ্বাস কুসংস্কার, মানুষগুলি পশু পর্যায়ের।”
সূত্র: ইসলাম শুধু নাম থাকবে পৃষ্ঠা-১২০

পাঠক, এখন আপনারাই বিচার করুন, তারা পশু বললে সেটা ঠিক, কিন্তু আমরা আল্লাহর সুরে সুর রেখে তাদেরকে নাপাক বললেই আমরা হয়ে যাই ধর্মব্যবসায়ী! হায় মূর্খতা,হায় অজ্ঞতা।

Check Also

উম্মতের বয়স ৬০/৭০ বছর।

প্রিয় পাঠক, আমি আগাগোড়াই বলে আসছি, হেযবুত তওহীদ একটি ভ্রান্ত দল। তাদের এ ভ্রান্তির পেছনে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.